কিভাবে ওয়েবসাইট থেকে আয় করা হয়।

ওয়েবসাইট থেকে আয়ঃ আমরা যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি তাদের মনে কখনো না কখনো প্রশ্ন জেগেছে ওয়েব সাইট এর মালিকরা কিভাবে ওয়েব সাইট থেকে আয় করে থাকে। ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করার বিভিন্ন ধরনের মাধ্যম রয়েছে আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের ওয়েবসাইট থেকে আয় করার জনপ্রিয় মাধ্যম গুলোর সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো। ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করার পদ্ধতি নিয়ে ইন্টারনেটে অনেক ধরনের আর্টিকেল আছে কিন্তু সেখানে বেশির ভাগই বেড়ে চেড়ে অনেক কিছু বলা হয়ে থাকে কিন্তু আজকে আমি সত্য তথ্য জানাব এবং বিভিন্ন ধরনের কি রকম করে আয় করে থাকে সেটি জানতে পারবেন।

ওয়েবসাইট থেকে আয় করার মাধ্যম গুলো

ইন্টারনেটে আমরা অনেক রকম ওয়েবসাইট দেখতে পারব এবং প্রত্যেক ওয়েবসাইট এর ধরনের উপর নির্ভর করে ওয়েবসাইটের মালিকরা আয় করে থাকে। অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম এই শব্দ সাথে আমরা ইন্টারনেট বাসী সবাই পরিচিত এবং ওয়েব সাইট থেকে ইনকাম একটি জনপ্রিয় মাধ্যম ইনকাম করার জন্য। আমরা যারা অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে চাই তাদের জন্য এই আর্টিকেল টি অনেক উপকারে আসবে কিভাবে ওয়েসাইট থেকে আয় করা হয়ে থাকে সেই সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। আপনি যদি আর্টিকেল মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে ওয়েবসাইট থেকে কিভাবে ইনকাম করার হয় সেই ধারণা পেয়ে যাবেন আর কারো কাছে যেতে হবে।

ইন্টারনেট এ আমরা ইকমার্স, টুলস ওয়েবসাইট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ওয়েবসাইট, ইনফরমেটিভ ওয়েবসাইট ইত্যাদি পেয়ে থাকবো এদের প্রত্যেক টি একই আবার আলাদা পদ্ধতি ইনকাম করে থাকে। তাই আমি কমন কিছু পদ্ধতি আলোচনা করব যার মাধ্যমে সাধারণ ওয়েবসাইট থেকে মানুষ ইনকাম করে থাকে।

১। যেসব ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করা হয় না

 

how to earn money from website

প্রথমে আমি আপনাদের বলতে চাই যেসব ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম সাধারণত করা হয় অর্থ্যাৎ ইনকাম করার জন্য তৈরী করা হয়ে থাকে না। আমরা ইন্টারনেট দুনিয়াই অনেক ওয়েবসাইট দেখে থাকি তাদের প্রত্যেকের কাজ আলাদা হয়ে থাকে। যেমন একটি ইকমার্স সাইট সেটি শুধু তাদের প্রডাক্ট সেল করে আয় করে থাকে আবার অনেক প্রতিষ্ঠান তাদের সার্ভিস কে মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে নিজের পরিচিত বাড়ানোর জন্য ওয়েবসাইট করে থাকে। অনেকের পার্সোনাল ওয়েবসাইট যেটা কে আমরা পোর্টফলিও বলে থাকি এই ধরনের সাইটে ব্যক্তি তাদের কমকার্ন্ড বা স্কিল গুলো পরিবেশন করা জন্য ব্যবহার করে থাকে নাকি এইখানে বিজ্ঞাপন দিয়ে ইনকাম করার জন্য খুলে থাকে। বিজ্ঞাপন দিয়ে ইনকাম বিষয়টা আপনাদের পড়ে বুঝাচ্ছি যারা একটু জানেন তারা বুঝে গেছেন কি বলতে চেয়েছি আমি।

আমরা আশে পাশে এই ধরনের অনেক সাইট দেখতে পাবো তারা শুধু তাদের পরিচিতির জন্য তাদের সার্ভিস কে জনগণের কাছে সুবিধা তুলে ধরার জন্য বানিয়ে থাকে। ওয়েবসাইট বলতে যে সেখান থেকে আয় সেটি ভুল ধারণা। আমরা উইকিপিডিয়ার সাথে সবাই পরিচিত এই ওয়েবসাইট থেকে আমরা বিভিন্ন রকম তথ্য পেয়ে থাকি কিন্তু জানেন এই ওয়েবসাইট টি আমাদের কে সম্পন্ন ফ্রি তে সব কিছু দিয়ে থাকে। উইকিপিডিয়া ব্যবহারের জন্য আমাদের কখনো কিছু দিতে হয় না একটি ফ্রি সংস্থা ওয়েবসাইট বলা যায়। কিন্তু আপনারা চাইলে তাদের কাজের জন্য তাদের কে ডোনেট করতে পারেন যাতে তারা আমাদের তথ্য দেওয়ার কাজ চালিয়ে যেতে পারে।

আরো পড়ুনঃ কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন প্লাগিন দিয়ে।

২। বিজ্ঞাপন (Advertisement ) থেকে আয়

advertisement

ইন্টারনেটে যেসব  সাইটে ইনফরমেশন পাওয়া বা আমরা কিছু জানতে পারি শিখতে পারি সেই সকল ওয়েবসাইট গুলোর প্রায়ই গুলোর কমন একটি ইনকামের পথ হলো বিজ্ঞাপন এর মাধ্যমে ইনকাম করা। আমরা বিভিন্ন ওয়েবসাইট ভিজিট করলে ওয়েবসাইটের বিভিন্ন জায়গা বিভিন্ন ধরনের প্রডাক্ট বা জিনিসের ইমেজ বা এড দেখতে পাবো মূলত এই জিনিস টা থেকে ওয়েবসাইট মালিকগণ ইনকাম করে থাকে। আমরা তো সবাই কম বেশি টিভি দেখে থাকি তারা কিভাবে ইনকাম করে? তারা ইনকাম করে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে কোন একটা অনুষ্ঠান হচ্ছে তার মধ্যে ৪-১০ মিনিটের একটা বিরতি দেয় সেখানে তারা বিভিন্ন কোম্পানির প্রডাক্ট বা সার্ভিস গুলো দেখিয়ে থাকে। এখন প্রশ্ন হলো এই গুলো ফ্রি দিয়ে থাকে? না একদম ই না এরা ঐ টিভি চ্যানেল ওয়ালা এর সাথে চুক্তি ভিত্তিক ভাবে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে থাকে এবং যার ফলে ঐ কোম্পানির কাছ থেকে একটা অ্যামাউন্ট এর টাকা নিয়ে থাকে।

ঠিকই একই ভাবে আপনার একটা ওয়েবসাইট আছে আপনি সেখানে বিভিন্ন রকমের তথ্য বা শিখার কিছু দিয়ে থাকেন এবং সেখানে অনেক ভিজিটর বা দর্শক রয়েছে অর্থ্যাৎ যারা আপনার লেখা পড়ে যেমন আপনি টিভি চ্যানেল দেখে থাকেন সেই হিসাবে আপনি ঐ টিভি চ্যানেলের দর্শক। এখন যখন বিরতি হচ্ছে তখন আপনি হয়তো ঐ বিজ্ঞাপন দেখছেন অথবা অন্য চ্যানেলে অন্য কিছু দেখছেন। ওয়েবসাইট এমন আপনি বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ঐ কোম্পানির কাছে থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারেন বিষয়টি আরো ভালো ভাবে বুঝতে নিজের ওয়েবসাইট কে টিভি চ্যানেলের সাথে তুলনা করুন।

একটি ওয়েবসাইট খুললেন আর ধুমছে ইনকাম করা শুরু করবেন তা কিন্তু নয় অনেকেই ব্লগে বিষয় টা কে সহজ করে উপস্থাপন করে যার ফলে অনেকের ভুল ধারণার সৃষ্টি হয় আবার ওয়েবসাইট থেকে যে ইনকাম করা কঠিন তাও না। ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করতে হলে আপনাকে একটা ভালো মানের ওয়েবসাইট বানাতে এবং সুন্দর সুন্দর মানসম্মত আর্টিকেল বা লেখা প্রকাশ করতে হবে এবং সঠিক ভাবে মার্কেটিং করে ভিজিটর বাড়াতে হবে। যখন  আপনার ওয়েবসাইট পরিমাণ মতো ভিজিটর আসবে তখন আপনি একটা ভালো অ্যামাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ ফ্রি হোস্টিং ব্যবহার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা।

এখন প্রশ্ন হলো ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ওয়েবসাইট থেকে আয় যে করব কিন্তু সেই বিজ্ঞাপন কে দিবে? উত্তর হলো আপনি যদি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট টি কে সুন্দর ভাবে গড়ে তুলতে পারেন এবং ভিজিটর মোটামুটি আনতে পারেন তাহলে আপনার একটা সময় ভালো ইনকাম করতে পারবেন। আপনার ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করার মূল হাতিয়ার হলো ভিজিটর যত বেশি ভিজিটর তত পরিমাণ ইনকাম চ্যান্স থাকে। ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন বা অ্যাডভারটাইজমেন্ট দুই ভাবে দেখিয়ে ইনকাম করতে পারেনঃ

  1. Local Advertisement: লোকাল এডভারটাইজিং বলতে, আপনার ওয়েবসাইট বিভিন্ন কোম্পানি বা লোকের সাথে চুক্তিতে তাদের কোন প্রডাক্ট আপনার ওয়েবসাইটে ৩০ দিন বা নির্দিষ্ট কিছু দিন দেখানোর মাধ্যমে একটা অ্যামাউন্ট চার্জ করতে পারেন। ধরুণ আপনার একটি পড়াশোনা বিষয়ক ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে প্রচুর স্টুডেন্ট পড়াশোনার টিপস ট্রিক পেয়ে থাকে এই জন্য আপনার অনেক ভিজিটর। এখন ধুরন আমরা একটা স্কুল বা প্রাইভেট সেন্টার রয়েছে এখন আমার সেখানে স্টুডেন্ট দরকার তাই আপনার ওয়েবসাইট কে আমি কোন ভাবি জানি এখানে অনেক স্টুডেন্ট আসে তাই আমি চাইলাম আপনার সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে। আপনি কি করলেন আপনার সাইট আমার কোচিং বা স্কুল সেন্টারের ভর্তির একটা ব্যানার কোথায় লাগিয়ে দিলেন এই দ্বারা আমি আপনি দুই জনেই উপকৃত হলাম।
  2. Online Advertisement: লোকাল ভাবে বিজ্ঞাপন নিতে হলে ওয়েবসাইট এর পরিচিত বেশি থাকা লাগে এটা একটি সত্য ব্যাপার বেশি লোকজন না জানলে কেউ লোকাল ভাবে বিজ্ঞাপন দিতে চাই না। কিন্তু ভিজিটর থাকলে অবশ্যই কেউ না কেউ স্পন্সর করবেই কিন্তু আপনি কি স্পন্সর পাওয়ার জন্য বসে থাকবেন? অবশ্যই না এখন অনলাইন ভিত্তিক বিভিন্ন প্রষ্ঠিতান তাদের পণ্য বা সার্ভিস জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে ইন্টারনেট ব্যবহার করছে যার ডিজিটাল মার্কেটিং এর আওতায় পড়ে। অনলাইনে আপনি এমন কিছু ওয়েবসাইট  পাবেন যারা বিভিন্ন কোম্পানির কাছে থেকে বিজ্ঞাপন নেয় এবং আমরা তাদের সাথে যুক্ত হয়ে আমাদের ওয়েবসাইট বিজ্ঞাপন দেখিয়ে থাকি। ওয়েবসাইট ইনকাম উপযোগী করা বিষয় বা প্রক্রিয়া টা কে ওয়েবসাইট মনিটাইজেশন বলে আর এই ওয়েবসাইট মনিটাজেশন বিভিন্ন কোম্পানি বিভিন্ন রকম নিয়মে দিয়ে থাকে যার যোগ্য হলে আমরা আমাদের সাইট বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ইনকাম করতে পারি। বিস্তারিত ৩ নাম্বার পয়েন্ট এ।

৩। গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম(Earn with Google Adsense)

how to earn money from google adsense

ওয়েবসাইট থেকে আয় করা  একটি জনপ্রিয় এবং অসাধারণ মাধ্যম হলো গুগল এডসেন্স(Google Adsense) । গুগল এডসেন্স হলো গুগলের একটি সার্ভিস যেখানে ব্যবসায়ী বা ব্যক্তি তার পণ্য বা সার্ভিস প্রচার করার জন্য এবং যাদের ওয়েবসাইট আছে তাদের ইনকামের একটি অসাধারণ মাধ্যম। অর্থ্যাৎ গুগল এডসেন্স একটি বিজ্ঞাপন প্রচারক কোম্পানি। গুগল এডসেন্স যেভাবে কাজ করে, গুগল এডসেন্স এ বিভিন্ন কোম্পানি তাদের প্রচরণার জন্য বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে আর যারা এই বিজ্ঞাপন দেন তাদের বলা হয় Advertiser। গুগল কে Advertiser বিজ্ঞাপন দেওয়ার পর গুগল করে কি যাদের ওয়েবসাইট বা ইউটিউব অথবা অ্যাপ আছে তাদের মাধ্যমে এই বিজ্ঞাপন গুলো দেখিয়ে থাকে। বিজ্ঞাপন দাতা থেকে গুগল যে পরিমাণ অর্থ নেই তার কিছু পারসেন্ট গুগল এডসেন্স নিজে রেখে দেয় আর বাকি যাদের মাধ্যমে প্রচার করে বিজ্ঞাপন তাদের দিয়ে দেয় আর যারা প্রচার করে বা গুগল এডসেন্স এর এড তাদের ওয়েবসাইট বা অ্যাপে সো করিয়ে থাকে তাদের কে বলা হয় পাবলিশার (Publisher)। আমরা যারা গুগল এডসেন্স কে ব্যবহার করে ইনকাম করে থাকি তারা সবাই হলো পাবলিশার।
এখন কথা হলো এইসব ওয়েবসাইট মনিটাইজেশন কোম্পানি কিসের উপর ভিত্তির করে পেমেন্ট করে এবং এদের সাথে যুক্ত হওয়ার উপায় কি? গুগল এডসেন্স দিয়ে ওয়েবসাইট থেকে আয় করতে হলে আপনাকে বিভিন্ন শর্ত ও তাদের পলিসি মতো সাইট রেডি করে তাদের কাছে আমার ব্লগ ওয়েবসাইট টি মনিটাইজ করার জন্য আবেদন করতে হবে। যদি গুগল এডসেন্স মনে করে যে আপনার ওয়েবসাইট টি তাদের এড দেখানোর জন্য প্রস্তুত তাহলে আপনার সাইটে আপনি বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ইনকাম করার জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবেন। গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট থেক আয় করা এখন অনেক টা সময় সহজ হয়ে  গেছে আগের তুলনায় আগের গুগল বাংলা ওয়েবসাইট সাপোর্ট করত না এখন করে।
গুগল এডসেন্স এর সাথে যে আপনি কাজ করতে পারবেন তা না , গুগল ছাড়াও অনেক ওয়েসাইট মনিটাইজেশন কোম্পানি রয়েছে তারা বিভিন্ন টাইপের এড দেয় ওদের থেকে এড নিয়েও আপনি ওয়েবসাইট থেকে আয় করতে পারেন। কিন্তু গুগল এডসেন্স এর মতো কিছু হয় না কারণ এটা গুগল মামার। এখন আসি এরা কিভাবে পে করে? গুগল এডসেন্স মূলত প্রতি ক্লিকে একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দিয়ে থাকে এবং আপনি প্রতি ক্লিকে কত করে পাবেন সেটি বিভিন্ন বিষয় উপর নির্ভর করে যেমন আপনার কনটেন্ট বাংলা না ইংরেজি, আপনার ওয়েবসাইট এর ভিজিটর কোন দেশের ইত্যাদি। গুগল এডসেন্স নিয়ে বলতে গেলে একটা আলাদা করে আর্টিকেল লিখা লাগবে তাই আজ এতটুকু।

আরো পড়ুনঃ ওয়ার্ডপ্রেস থাকতে কেন কোডিং শিখবো?

৪। অ্যাফিলিয়েট ম্যার্কেটিং করে আয়(Earn from affiliate marketing)

how to earn from affilate marketin

ওয়েবসাইট থেকে আয় করার জনপ্রিয় আরেকটি পদ্ধতি হলো অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি? অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হলো অন্যের পণ্য বা সার্ভিস নিজের প্রচার প্রচরণার মাধ্যমে বিক্রি করে দিয়ে কমিশন নেওয়া কে বুঝায়। বিষয় টা ভালো করে বুঝিয়ে দিচ্ছি ধরুণ আপনার একটি ওয়েবসাইট আছে সেখানে আপনি প্রযুক্তি সম্পর্কিত বিভিন্ন রকম গ্যাজেট রিভিউ করেন এখন যদি আমি আপনাকে বলি আমার একটি অনলাইন স্টোর রয়েছে এখানে এই প্রোডাক্ট আছে সেটি  আপনার আর্টিকেলে কেনার লিংক দিবেন। যদি সেখান থেকে কেউ প্রোডাক্ট টি কিনে আপনি ৫-১০% পর্যন্ত কমিশন পাবেন প্রত্যেক সেল এ। এই পুরো প্রসেস টা কে বলা হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং আপনি অন্যের প্রোডাক্ট মার্কেটিং করে সেল করে দিবেন তার বিনিময়ে আপনি কমিশন পাবেন।

প্রোডাক্ট মার্কেটিং করার জন্য ওয়েবসাইট একটি অসাধারণ মাধ্যম অনেকেই বিশেষ করে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য ওয়েবসাইট তৈরী করে থাকে। ওয়েবসাইট থেকে আয় করার জন্য আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কে নির্বাচন করতে পারেন। আমরা অনেকেই অ্যামাজন, আলি এক্সপ্রেস ইত্যাদি ইকমার্স ওয়েবসাইট এর সাথে পরিচিত। অ্যামাজন ও আলি এক্সপ্রেস সহ আরো অন্য সব ইকমার্স ওয়েবসাইট গুলোতে অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম  আছে আপনার যদি ভালো একটি ইংলিশ ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেল থাকে তাহলে সেখান থেকে আপনি ভালো একটা আর্নিং করতে পারবেন।

ধরুন আপনি একটি মোবাইল রিভিউ করলেন এবং সেই আর্টিকেল টি গুগলে র‍্যাংকে আছে এবং সেখানে আপনি অ্যামাজ থেকে ঐ প্রোডাক্ট এর লিংক দিয়ে রাখছেন। এখন যদি আপনার দেওয়া ঐ লিংক থেকে কেউ প্রোডাক্ট কিনে তাহলে আপনি কমিশন পাবেন আর প্রত্যেক বার ই পাবেন তাই যত সেল তত আর্নিং।

ওয়েবসাইট থেকে আয় করতে হলে ওয়েবসাইট কে সেই ভাবে তৈরী করতে হবে এবং মার্কেটিং করে ভিজিটর বাড়ানো লাগবে এবং সাকসেস ফুল হতে গেলে বাইরের দেশ কে টার্গেট করে সাইট বানাতে হবে। ওয়েব সাইটে যখন ভালো ট্রাফিক নিয়ে আসতে পারবেন তখন আপনার কাছে ওয়েবসাইট থেকে আয় করার অনেক পথ খুলে যাবে।

আরো পড়ুনঃ মোবাইলে Android ফোল্ডার এর কাজ কি?

৫। সার্ভিস সেল বা টুলস ওয়েবসাইট থেকে আয়

একটি ব্লগ ওয়েবসাইট থেকে যে আয় করা যায় বিষয় টি তেমন না আমি দেখছি অনেক ওয়েবসাইট ব্লগ বা নিউজ এইসব কোন সাইট না। অনলাইনে আমরা অনেক রকম টুলস ওয়েবসাইট পাই যেমনঃ ইমেজ কম্প্রেস, ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড, ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড, ইমেজ ইডিটর ইত্যাদি। এইসব ওয়েবসাইট গুলো আমাদের এই রকম ছোট সার্ভিস দেয় যেমন আমাদের জন্য কোন ইমেজ কনভার্ট করার প্রয়োজন হয় তখন গুগলে গিয়ে লিখে Image Converter তারপর যে সাইট আসে সেখানে প্রবেশ করে নিজেদের কাজ করে ফেলি এখন যদি এই ওয়েবসাইট গুলোর দিকে ভালো করে খেয়ার করেন তাহলে দেখবেন তারা গুগল এডসেন্স ব্যবহার করছে। আপনি যদি ভালো প্রোগ্রামার বা ডেভেলম্পার হয়ে থাকেন এই ধরনের ইউনিক টুল বেরে করে গুগলে র‍্যাংক করাতে পারলে যখন প্রচুর ভিজিটর হবে গুগল এডসেন্স এ অ্যাপ্লাই করার পর পেয়ে গেলেই ভালো একটা আর্নিং আশা করা যায়। আমাদের প্রায়ই এইসব টুল অনেকের প্রয়োজন হয় যা গুগল সার্চ করলেই দেখা যায়। তাহলে কি জানলাম ওয়েব সাইট থেকে আয় করা জন্য ছোট টুলস ওয়েবসাইটও অনেক কার্যকরী হতে পারে।

এখন আসি সকল ওয়েবসাইট কিন্তু আবার বিজ্ঞাপন থেকে ইনকাম করে না কারণ আমরা অনেক ওয়েসাইট দেখব যেখানে তাদের সার্ভিস ব্যবহার করার জন্য মাসিক একটা বিল নেই তারা কোন এড দেয় না। আমি যেহেতু সব ওয়েবসাইট এর কথা বলছি যে তারা কিভাবে ওয়েবসাইট থেকে আয় করে তাই এই জিনিস গুল জলো জানিয়ে দিলাম। এখন আমরা যদি নিজেদের সাধারণ জ্ঞান ব্যবহার করি তাহলে প্রত্যেক ওয়েবসাইট কিভাবে কাজ করে কিভাবে তারা ওয়েবসাইট থেকে আয় করে বুঝতে পারব।

শুধু এইসব সাধারণ ওয়েবসাইট নয় ফেসবুক ও গুগল হলো এই বিজ্ঞাপন দ্বারাই ইনকাম করে থাকে যদিও তাদের আরো অনেক সার্ভিস রয়েছে কিন্তু বিজ্ঞাপন পদ্ধতি দ্বারাই তারা তাদের ওয়েবসাইট থেকে আয় করে থাকে।

আশা করি, আপনাদের বিস্তারিত সুন্দর করে ধারণা দিতে পেরেছি যে কিভাবে ওয়েবসাইট থেকে আয় করা হয়ে থাকে। ধন্যবাদ

বিভিন্ন ধরনে টিপস এন্ড ট্রিক সহ প্রযুক্তি সম্পর্কিত বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্য তৈরী প্রযুক্তি বিদ্যা। টেকনোলজি সম্পর্কিত আর্টিকেল পেতে প্রতিদিন ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট।

Leave a Comment