গুগল মামার অফিস অ্যাপ্লিকেশন রিভিউ-2021

অফিস অ্যাপ্লিকেশনঃ কম্পিউটারের বেসিক সফটওয়্যার গুলো মধ্যে মাইক্রোসফট অফিস অ্যাপ্লিকেশন গুরুত্বপূর্ণ সফটওয়্যার যা প্রত্যেকের কম্পিউটারে থাকে। বেশির ভাগ কম্পিউটার ব্যবহারকারী ওয়ার্ড প্রসেসিং বা অফিফের কাজ কর্ম করার জন্য Microsoft Office Application গুলো ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু এটি একটি পেইড সফটওয়্যার অর্থ্যাৎ এটি ব্যবহার করতে কিনে ব্যবহার করতে হবে অথবা অন্য কোন উপায়ে ব্যবহার করতে হবে। কিন্তু আমরা অনেকে জানি যে ওয়ার্ডপ্রসেসিং বা অফিস/ বা ডকুমেন্ট রিলেটেড কাজ করার জন্য আরো ওপেনসোর্স সফটওয়্যার রয়েছে যেগুলো আপনারা বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারি।

পোস্টের টাইটেল দেখে বুঝে গেছেন হয়তো কি নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি। ডকুমেন্ট রিলিটেড কাজ করার জন্য ফ্রি ভার্সন অনেক সফটওয়্যার রয়েছে তার মধ্যে আমি আপনাদের গুগল মামার কিছু Office Application টুল শেয়ার করব যেগুলো একদম ফ্রি এবং রয়েছে অসাধারণ সব ফিচার। মাইক্রোসফট অফিসে Word, Excel, Power Point, Access এই চার টি বেশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এইগুলোর মধ্যে একটি বাদে বাকি তিনটি গুগল  মামার কাছে পেয়ে যাবেন সম্পন্ন ফ্রি এবং কাজ ও করবে অসাধারণ।

গুগল মামার অফিস অ্যাপ্লিকেশন

নিচের ৩ টি সফটওয়্যার(ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন) আমরা মাইক্রোসফট অফিস অ্যাপ্লিকেশনের বিপরীত হিসাবে ব্যবহার করতে পারি এবং তা সম্পন্ন ফ্রিতে। আমরা হয়তো অনেকে এই গুলো সাথে পরিচিত কিন্তু ব্যবহার করেন তারাও এই পোস্ট পড়া চালিয়ে যান তাহলে এর ফিচার গুলো আপনাকে বাধ্য করতে পারে ব্যবহারের জন্য। গুগলের জি সুইট এর মধ্যে থাকে এই তিনটা সফটওয়্যার কে আমি অফিস অ্যাপ্লিকেশন বলছি কারণ এটি Microsoft Office এর মতো আর এটি যেহেতু জি সুইটের অংশ তাই সঠিক নাম না পেয়ে গুগল অফিস টাইটেল ব্যবহার করা হয়েছে।

Google Office Application:

  1. Google Doc
  2. Google Sheet
  3. Google Slide

এই তিনটি সফটওয়্যার যথাক্রেম মাইক্রোসফট ওয়ার্ড,এক্সেল,পাওয়ার পয়েন্ট এর বিপরীত হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন। অনেকে হয়তো এদের সাথে পরিচিত কিন্তু ব্যবহার করেন নি তারা পোস্ট ই শেষে এটি ব্যবহার করে করতে পারেন।

গুগল ডক্স, সীট,স্লাইড তিনটি ওয়েব ভিত্তিক অ্যাপ্লিকেশন অর্থ্যাৎ এটি গুগলের নির্দিষ্ট লিংক ভিজিট করলে পেয়ে যাবেন। এটি যেহেতু একটি ওয়েবভিত্তিক সফটওয়্যার তাই আপনাদের কে কোন ইন্সটলের ঝামেলা পোহাতে হবে। গুগল অফিস বা জি সুইট টি আপনি ইন্সটল না করেই ব্যবহার পারবেন যার ফলে মেমোরি অনেক স্পেস ও বেঁচে যায়।

গুগল ডক্স কি? (Google Docs)

google docs

Microsoft Word Alternative: গুগল ডক্স (Google Docs) হলো গুগলের ওয়েব ভিত্তিক ওয়ার্ড প্রসেসিং অ্যাপ্লিকেশন যেটি আপনি মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের মতো কাজ কর্ম করতে পারবেন। এটি সম্পন্ন মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের ফিচার না দিতে পারলেও এতে রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণ ফিচার যা আপনাদের কাজ কর্ম সঠিক ভাবে সম্পাদন করতে বাধা দিতে না। Google docs ও রয়েছে বোল্ডা, ইতালিক, আন্ডার লাইন, ফন্ট সিকেলশন, টেবিল ইমেজ ইনশার্ট সুবিধা। এটি Insert অপশন চাইলে আপনি গুগল থেকে কোন ইমেজ সার্চ করে এড করতে পারবেন, গুগল ফটোস এ থাকা ইমেজ গুলো এড করতে পারবে, গুগল ড্রাইভে থাকা ইমেজ এড করতে পারবেন, আবার যেকোন কিছু ড্রয়িং করে সেটি পেজের মধ্যে ইমপোর্ট করতে পারবেন, আবার চার্ট সুবিধাও রয়েছে।

এতো এতো গুলা ফিচার যা একজন সাধারণ ব্যবহারকারী থেকে শুরু করে যারা এডভ্যান্সড কাজে ব্যবহার করেন তারাও এটি ব্যবহার করতে আশা করি সকল কাজ করতে পারবেন। অন্যদিকে মাইক্রোসফট অফিস আমাদের কিনে ব্যবহার করতে হয় বা অন্য পদ্ধতি অ্যাপ্লাই করে ব্যবহার করতে হয় সেটি থেকে মুক্তি পাচ্ছেন আর কি লাগে। গুগল ডক্স এ রয়েছে ভয়েস টাইপিং সুবিধা, কষ্ট করে আপনাকে টাইপ করতে হবে নাহ মেনু বার থেকে Tools এ গিয়ে Voice Typing ক্লিক করে পছন্দমতো ভাষা সিলেক্ট করে বলা শুরু করবেন গুগল মামার docs অটো আপনার ভয়েস কে টেক্সটে কনভার্ট করে দিবে এতে আরো দ্রুত লিখতে পারবেন।

Google Docs Preview

অটো সেভিংঃ কাজ করার সময় আপনার বার বার সেভ করতে হবে আপনি কাজ করা অবস্থায় নিজে থেকে সেভ হবে। এতে করে বিদ্যুৎ চলে গেলেও লেখা গুলো হারানোর চ্যান্স খুব কম হয়ে যায়। আপনার কাজ করা ফাইল টি গুগল ড্রাইভে হোম ডিরেক্টরি তে সেভ হয়ে থাকে ডিফল্ট ভাবে সেটি আপনি পরিবর্তন করে ইচ্ছা মতো ফোল্ডারে সেভ করতে পারবেন।

Add-ons: গুগল ডক্সে অতিরিক্ত কোন ফিচার যুক্ত করতে চাইলে এড-অন অপশন রয়েছে এখান আরো কিছু টুলস বা ফিচার যুক্ত করতে পারেন আপনার চাহিদা মতো।

ডাউনলোডঃ আপনার ডকুমেন্টের কাজ করা শেষ হয়ে গেলে এটি বিভিন্ন ফরম্যাটে লোকাল কম্পিউটারে ডাউনলোড করতে পারবেন।

এছাড়াও মাইক্রোসফট অফিস অ্যাপ্লিকেশন এর মধ্যে ওয়ার্ড এর যেসব ফিচার রয়েছে যেগুলো Google Docs এ পেয়ে যাবেন। বিস্তারিত জানতে নিজে ডক্স ভিজিট করে দেখতে পারেন আশা করি আপনাকে এটি সন্তুষ্ট করতে পারবে। তো দেরী কিসের ফ্রিতে ব্যবহার করুন গুগল মামার ওয়ার্ড প্রসেসিং সফটওয়্যার। আরো কিছু ফিচার আছে যা Google docs, excel, sheets কম ফিচার তাই সেই গুলো শেষে উল্লেখ করা হবে।

গুগল সীট (Sheets)

google sheets

Microsoft Excel Alternative: বিভিন্ন হিসাব-নিকাশের কাজসহ অন্যান্য কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে মাইক্রোসফট অফি অ্যাপ্লিকেশনের Excel নামের প্রোগ্রাম টি। ঠিকত তেমন গুগল সীট(Google sheets) হলো গুগলের ওয়েব ভিত্তিক এক্সেল প্রোগ্রাম যা দ্বারা মাইক্রোসফট এক্সেল এর মতো সকল ধরনের কাজ করতে পারবেন। একটি স্প্রেডশীটে যেসব ফিচার বা টুলস দরকার পরে সেটি Google Sheets ও দেওয়া হয়েছে এবং এক্সেল যে ফাংশন গুলো ব্যবহার করতে সেইগুলো এখানেও কাজ করবে এর ফলে নতুন করে তেমন কিছু শিখার প্রয়োজন পড়বে না। Google sheets এর ফিচার গুলো সম্পর্কে আরো জানতে উপরের লিংক থেকে ভিজিট করে দেখে নিন।

গুগল স্লাইড(Google Slides)

google slide

Microsoft PowerPoint Alternative: প্রেজেন্টেশন তৈরী করার জন্য সাধারণত মাইক্রোসফট পাওয়ার পয়েন্ট ব্যবহার করা হয়ে থাকে যেটি দ্বারা সুন্দর সুন্দর প্রেজেন্টেশন তৈরী করা যায়। ঠিকই তেমন গুগল স্লাইড হলো পাওয়ার পয়েন্ট এর অল্টারেন্টিভ একটি অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে আপনি সুন্দর সুন্দর প্রেজেন্টেশন তৈরী করতে পারেন। মাইক্রোসফট অফিস অ্যাপ্লিকেশন এর পাওয়ার পয়েন্ট দিয়ে যেমন ডিজাইন, প্রেজেন্টেশন তৈরী করেন ঠিক সকল ফিচার গুলো গুগল স্লাইডে না পাইলেও যথেষ্ট পরিমাণ টুলস বা ফিচার পাবে যেটা দ্বারা সুন্দর Presentation তৈরী করা যাবে।

এক নজরে Google Docs, Sheets, Slides ফিচার গুলোঃ

গুগল মামার অফিস অ্যাপ্লিকেশন গুলোর যেসব কমন ফিচার গুলো রয়েছে সেইগুলো একত্রে আলোচনা করা হলো। এইখানে শুধু ফিচার গুলো কি কি আছে সেই গুলো উল্লেখ করা হবে এটি কিভাবে ব্যবহার করবেন সেটি নিজ দায়িত্বে দেখে নিবেন।

  • এটি বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন। এর জন্য কোন প্রকার টাকা খরচ করতে হবে না যেখানে মাইক্রোসফট অফিস কিনে ব্যবহার করতে হয়।
  • Goole Docs, Sheets, Slides ব্যবহার করার জন্য এটি ইন্সটল করার প্রয়োজন নাই। এটি ওয়েব ভিত্তিক সফটওয়্যার আপনার ক্রোম বা যেকোন ব্রাউজার দ্বারা লিংকে প্রবেশ করলেই কাজ করার ইন্টারফেস টি পেয়ে যাবেন।
  • কাজ করার সময় বার বার ডকুমেন্ট সেভ করা একটা বিরক্তের কারণ হয়ে দাঁড়ায় মাঝে মাঝে কিন্তু এটি তে সেই ঝামেলা নিতে হবে না। এখানে রয়েছে অটো সেভিং সুবিধা, কাজ করার কিছুক্ষণ পর পর অটো সেভ হয়ে যাবে।
  • যেকোন ফাইল ডক্স, সীট, স্লাইড ইত্যাদি নির্দিষ্ট ব্যক্তি কে শেয়ার করতে পারবেন এবং তার এটি চাইলে ইডিট ও করতে পারবে এমন পারমিশন দিতে পারেন।
  • শেয়ারকৃত ডকুমেন্ট গুলোতে যে যে ব্যক্তি কে শেয়ার করা হয়েছে তারা চাইলে এক সাথে একই ডকুমেন্টে কাজ করতে পারবে।
  • একই ডকুমেন্ট সবাই কাজ চলা কালীন মেসেজ করতে পারবে। ডকুমেন্টে উপরের দিকে একটি চ্যাট অপশন রয়েছে এতে কাজ করার সময় আলোচনা করে কাজ করা যাবে।
  • ডকুমেন্টে ছবির দরকার পড়লে ঐখান থেকে গুগল সার্চ করে বা গুগল ফটোস থেকে অথবা ড্রাইভ থেকে ছবি এড করতে পারবেন।
  • docs, sheets, slides এর রয়েছে কিছু ফ্রি টেম্পলোট যেই গুলো মডিফাই করে আপনার কাজে লাগাতে পারেন।
  • ডকুমেন্ট প্রস্তুত হয়ে গেলে গুগল ড্রাইভে সেভ হয়ে থাকবে এবং চাইলে আপনি আপনার লোকাল কম্পিউটারে ডাউনলোড করে নিতে পারেন উক্ত ফাইল টি। ডাউনলোড করার সময় কমন ফরম্যাট গুলো পাবেন আপনার পছন্দের ফরম্যাটের ডাউনলোড করে নিবেন।

গুগল অফিসের অসুবিধা

Google docs, sheets, slides যেহেতু ওয়েব ভিত্তিক অফিস অ্যাপ্লিকেশন এটি অ্যাক্সেস করার জন্য ইন্টারনেটের প্রয়োজন পড়ে তাই আপনার কম্পিউটারে যদি ইন্টারনেট কানেকশন না থাকে সব সময় তাহলে এটি আপনার জন্য অসুবিধার। কিন্তু একটি ক্রোম এক্সটেনশন রয়েছে যেটি দ্বারা অফলাইনও এই গুলো ব্যবহার যদিও আমি কখনো ট্রাই করি নাই অফলাইনে আপনি চেষ্টা করতে পারেন। এটি অবশ্য অফিশিয়াল এক্সটেনশন গুগলের কোন থার্ড পার্টির নাহ।

Google Docs Offline

আশা করি, আজকের আপনাদের সাথে মাইক্রোসফট অফিস অ্যাপ্লিকেশনের বিপরীত ধর্মী একটি ফ্রি টুল যেটিকে আমি গুগল অফিস  অ্যাপ্লিকেশন বলে থাকি সেটি আপনাদের পছন্দ হয়েছে। আজ থেকে এটি মাইক্রোসফট অফিসের অ্যাপ্লিকেশন এর অল্টারনেটিভ হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন।

ধন্যবাদ

আরো পড়ুনঃ

কিভাবে শক্তিশালী পার্সওয়ার্ড তৈরী করবেন।

ইন্টারনেট জগতে যেসব ভুল করা উচিত নয়!

ক্লাউড স্টোরেজ কি ? এটি ব্যবহারের সুবিধা।

বিভিন্ন ধরনে টিপস এন্ড ট্রিক সহ প্রযুক্তি সম্পর্কিত বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্য তৈরী প্রযুক্তি বিদ্যা। টেকনোলজি সম্পর্কিত আর্টিকেল পেতে প্রতিদিন ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট।

2 thoughts on “গুগল মামার অফিস অ্যাপ্লিকেশন রিভিউ-2021”

Leave a Comment